Monday, November 29, 2021
Homeসংবাদমেয়ের আচরণে মুগ্ধ হয়ে একই পরিবারের ৬ জনের ইসলাম গ্রহণ

মেয়ের আচরণে মুগ্ধ হয়ে একই পরিবারের ৬ জনের ইসলাম গ্রহণ

ধর্মান্তরিত মেয়ের আচরনে মুগ্ধ হয়ে সিলেটের ওসমানীনগরে একই পরিবারের ৬ জন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। ওই পরিবারের ২ মেয়ে জোসনা ও মরিয়ন ২০০৪ সালের ২৫ জানুয়ারী ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেও পিতৃ পরিবারের সাথে তাদের সর্ম্পকছেদের পরিবর্তে আরো দায়িত্বশীল হয়ে উঠে। বিষয়টিতে তৃপ্ত হন ধর্মান্তরিত মেয়েদের বাবা রাধীকা রায়।

এভাবে দিন-মাস-বছর গড়িয়ে যায়। তারর্পও ধর্মান্তরিত মেয়েরা স্বামীর পরিবারে থাকলেও পিতা মাতার প্রতি তাদের সর্ম্পক গভীর করে তোলে। এতে করে ইসলাম ধর্মের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায় রাধীকা রায়, তার স্ত্রী ও অন্যান্য সন্তানদের। এক পর্যায়ে স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে ধর্ম পরিবর্তন করে ইসলম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন তারা। এরই প্রেক্ষিতে গত সোমবার আইনী মাধ্যমে তারা ইসলাম ধর্মের প্রতি নিজের আনুগত্য প্রকাশ করে, কালেমা শাহাদাত পাঠ করে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেন।

ধর্মগ্রহণকারীরা হচ্ছেন, ওসমানীনগরের সাদিপুর ইউনিয়নের সাদিপুর গ্রামের মৃত রাধা রসন রায়ের পুত্র রাধীকা রায় (৯০) (বর্তমান নাম আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ), রাধীকা রায়ের স্ত্রী সিন্দু রানী রায় (৭৫) (বর্তমান নাম খাদিজাতুল কুবরা), রাধীকা রায়ের পুত্র নিথিশ রায় (৩৪) (বর্তমান নাম আব্দুল্লাহ ওমর), নিথিশ রায়ের স্ত্রী ঝুমা রাণী রায় (৩৩) (বর্তমান নাম উম্মে কুলসুম), নিথিশ রায়ের দুই পুত্র সজীব রায় (১০) (বর্তমান নাম আব্দুল্লাহ জায়েদ) ও সূর্য রায় (৪) (বর্তমান নাম আব্দুল্লাহ হোবাইদ)।
ট্রাম্প- কিম সিঙ্গাপুরে, মঙ্গলবার বৈঠক
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন সিঙ্গাপুরে পৌঁছেছেন। ট্রাম্পের আগেই সিঙ্গাপুরে হাজির হন কিম। বিবিসি জানিয়েছে, আগামী মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের বিলাসবহুল কাপেলা হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে ট্রাম্প ও কিমের ঐতিহাসিক বৈঠক। এ বৈঠক নিয়ে এরই মধ্যে বিশ্ব রাজনীতিতে নানা আলোচনা শুরু হয়েছে।

এর আগে এই সাক্ষাৎকে ‘শান্তি মিশন’ বলে উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, ‘এই বৈঠক একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া।’ ট্রাম্প আরও বলেন, ‘কিম জং উন চাইলে তাঁর জনগণের জন্য ভাল কিছু করতে পারে। এরকম সুযোগ তিনি আর পাবেন না।’
বেশ কয়েকবছর ধরে ট্রাম্প এবং কিমের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। তবে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার দুই শীর্ষ নেতা একসঙ্গে বসে আলোচনার করার পর থেকে চিত্র বদলাতে শুরু করেছে। গত মাসে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন কিম। কোরিয়ার দুই শীর্ষ নেতার এমন আন্তরিক বৈঠকের ফলে কোরিয়া উপদ্বীপের বিবাদ শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে আশা করছেন অনেকে।

উত্তর কোরিয়া সম্প্রতি জানিয়েছে, তারা পরমাণু পরীক্ষা কেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দিবে। ক্ষেপনাস্ত্র কর্মসূচিও স্থগিত করার প্রতিশ্রুতি দেয় দেশটি। অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিকে মনোযোগ দিচ্ছে বলেই এ পরিবর্তন আনা হচ্ছে বলে জানায় দেশটির কর্মকর্তারা।
খবরটি শেয়ার করুন

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments