1. [email protected] : abdullah ashik : abdullah ashik
  2. [email protected] : admin :
'শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না হলে রাজাকাররা আমাকে মেরে ফেলবে'
January 25, 2022, 8:12 am

‘শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না হলে রাজাকাররা আমাকে মেরে ফেলবে’

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, June 12, 2018
  • 1536 Time View

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না হলে রাজাকাররা আমাকে মেরে ফেলবে। সম্প্রতি মুন্সীগঞ্জের এক ইফতারপূর্ব অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেছিলেন, মনোনয়ন পেলে মুন্সীগঞ্জকে মাদকমুক্ত করব। আমার জীবনের চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। আমি রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা হয়েছি। শেষ জীবনে আমার ইচ্ছা আপনাদের সেবা করার। আমি আপনাদের বন্ধু হয়েই থাকতে চাই। অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, আমি অঙ্গীকার করছি, আমি নির্বাচিত হলে সরকারের কোনো সুযোগ-সুবিধা নেব না। সন্ত্রাসীদের প্রশ্রয় দেব না। উৎস- আমাদের সময়
আরও পড়ুন- জাতীয় নির্বাচন নিয়ে ভারতের ‘দৃষ্টিভঙ্গির’ পরিবর্তন দেখেছে বিএনপি
চলতি বছরের ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এরই মধ্যে ভারত সফর করে আসা বিএনপির দুই নেতা দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু জানিয়েছেন, বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে তারা ভারতের ‘দৃষ্টিভঙ্গির’ পরিবর্তন দেখতে পেয়েছেন।

অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশন, বিবেকানন্দ ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন, রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক, বাংলাদেশের বর্তমান রাজনীতি ও আগামী নির্বাচন’ শীর্ষক তিনটি সেমিনারে অংশ নেন বিএনপির এই দুই নেতা। এক সপ্তাহের সফর শেষে শুক্রবারই দেশে ফিরেছেন তাঁরা।
আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, “ভারতের বিভিন্ন থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠান, সিভিল সোসাইটি, সাংবাদিকদের সাথে আমাদের আলোচনা হয়েছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশের যে সঙ্কট, তা তারা অনুধাবন করছে এবং এটা থেকে বেরিয়ে আসার প্রয়োজন আজ তারা মনে করছে। এটা একটা ইতিবাচক পরিবর্তন। বাংলাদেশে একটি নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য ও অংশীদারিত্বমূলক নির্বাচন দেখতে চাইছে ভারত।”

আবদুল আউয়াল মিন্টু বলেন, “তাদের সাথে আলোচনা করে আমাদের মনে হয়েছে যে, ভারতের দৃষ্টিভঙ্গি খুব পরিষ্কার। উনারা চাচ্ছেন, এবারে বাংলাদেশে একটা অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশীদারিত্বমূলক নির্বাচন হোক।”
“সেমিনারে আমাদের বক্তব্য তারা মনোযোগ দিয়ে শুনেছেন। আগে আমরা এতোটা মনোযোগ পাইনি। তাদের সঙ্গে কথা-বার্তার মধ্য দিয়ে দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন দেখতে পেয়েছি।” এছাড়া সফরে ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপি, বিরোধী দল কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গেও তারা কথাবার্তা বলেছেন।

এ বিষয়ে আমীর খসরু বলেন, “বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক স্পেস নাই, নির্বাচনের কোনো স্পেস নাই, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তো দূরের কথা, এসব নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। ভারত বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ চায়, আইনের শাসন চায়, মানবাধিকার চায়, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা চায়। এখানে আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে ভারতের সেই ভূমিকাটা অবতীর্ণ হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। তাহলে বাংলাদেশের জনগণের বিশ্বাসের ঘাটতি অনেকটা কেটে যাবে,” বলেন তিনি। সূত্র: বিডিনিউজ২৪
খবরটি শেয়ার করুন

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 TV Site
Develper By ITSadik.Xyz