1. [email protected] : abdullah ashik : abdullah ashik
  2. [email protected] : admin :
এয়ারহোস্টেস-কর্মচারীদের যোগসাজশে শাহজালালে যেভাবে ঘটে স্বর্ণের চোরাচালান
January 25, 2022, 10:50 am

এয়ারহোস্টেস-কর্মচারীদের যোগসাজশে শাহজালালে যেভাবে ঘটে স্বর্ণের চোরাচালান

Reporter Name
  • Update Time : Friday, October 27, 2017
  • 49 Time View

গত মঙ্গলবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শক্ত নিরাপত্তাবেষ্টনী গলিয়ে ৯ কেজি ৩৩৩ গ্রাম সোনা পাচারকালে এক চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এরপরই প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদের কাছ থেকে বেরিয়ে এসেছে স্বর্ণের চোরাচালান পদ্ধতির আসল তথ্য।

ওই দিন রাত ১০টার দিকে বিমানবন্দর চত্বরের মক্কা রেস্তোরাঁর সামনে থেকে চার কোটি টাকা মূল্যের ৮০টি সোনার বারসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় একটি টয়োটা প্রিমিও মডেলের প্রাইভেটকার ও তিনটি মোবাইল ফোন জব্দ করে ডিবির উত্তরা জোনাল টিমের সদস্যরা।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ক্যাটারিং শাখায় কর্মরত মীর হোসেন (২৮) এবং আমিরাতফেরত যাত্রী ফারুক আহম্মেদ (৩৮) ও মো. শাহিন (২১)।

গ্রেপ্তারকৃত মীর হোসেন রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ক্যাটারিংয়ে কর্মরত। দীর্ঘদিন ধরে তিনি বিমানবন্দর থেকে সোনার চালান বের করে আনার কাজ করে আসছিলেন। খাবার সরবরাহের দায়িত্ব থাকলেও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি চালান বিমানবন্দর থেকে পাচার করেছেন তিনি।

ইতোমধ্যে চোরাচালানকারী চক্রের বিভিন্ন ধাপে জড়িত বেশ কয়েকজনের নাম পাওয়া গেলেও তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করা যাচ্ছে না। তবে আটক সোনার বারের মধ্যে ৪০টি বারের মালিক গ্রেপ্তার ফারুক আহমেদ নিজে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এখন প্রশ্ন দাঁড়াচ্ছে, বিমানবন্দরের এতো কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী পেরিয়ে কিভাবে দেশের অভ্যন্তরে ঢুকল এই স্বর্ণের চালান?

জানা যায়, ৯ কেজি ৩৩৩ গ্রাম সোনার ঐ চালানটি মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে দুবাই থেকে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসে।

আতকৃতদের দেওয়া তথ্যে জানা যায়, আন্তর্জাতিক স্বর্ণ চোরাচালানকারী চক্রের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত একশ্রেণির অসাধু এয়ারহোস্টেস ও খাবার সরবরাহকারী ক্যাটারিং কর্মচারীরা।

বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে স্বর্ণ সংগ্রহ করে সিন্ডিকেটের সদস্যরা সেগুলো উড়োজাহাজের ভেতরে পৌঁছায় এয়ারহোস্টেসদের মাধ্যমে। এসব এয়ারহোস্টেসই সুবিধামতো এক বা একাধিক আসনের নিচে অথবা বাথরুমে সেগুলো রেখে লুকানো স্থানের ঠিকানা সরবরাহ করেন অন্যদের। বিমানের যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পর ময়লার সঙ্গে লুক্কায়িত স্বর্ণগুলো বাইরে নিয়ে আসেন ক্যাটারিং শাখার কর্মচারীরা।

এর পর চোরাচালান সিন্ডিকেটে জড়িত বিমানবন্দরের অন্যদের সহায়তায় স্বর্ণ নিয়ে আসা হয় টার্মিনালের বাইরে।

সেখান থেকে চক্রের অপেক্ষমাণ অন্য সদস্যদের হাতে চোরাই সোনা তুলে দেওয়া হয়। তারাই বিভিন্ন পরিবহনের মাধ্যমে নির্ধারিত গন্তব্যে পৌঁছে দেয় চোরাচালানের মাধ্যমে আসা স্বর্ণগুলো।

এভাবেই বিমানবন্দরের শক্ত নিরাপত্তাবেষ্টনী, গোয়েন্দা পুলিশ, শুল্ক গোয়েন্দা, বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে বছরের পর বছর স্বর্ণ চোরাচালান করছে আন্তর্জাতিক স্বর্ণ চোরাচালানে জড়িত একাধিক চক্র।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য (উত্তর) বিভাগের ডিসি শেখ নাজমুল আলম জানান, ৯ কেজি ৩৩৩ গ্রাম সোনার চালানটি মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে দুবাই থেকে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসে।

বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গার গেট দিয়ে সোনার চালানটি বের করা হবে এমন তথ্য পেয়ে ডিবির উত্তরা জোনাল টিমের সদস্যরা আগেই বিমানবন্দর চত্বরে মক্কা রেস্তোরাঁর সামনে অবস্থান নেন। রাত ১০টার দিকে বিমানবন্দর থেকে টয়োটা প্রিমিও মডেলের একটি প্রাইভেটকারে করে উত্তরার কাওলার দিকে যাচ্ছিলেন মীর হোসেন ও মো. ফারুক আহম্মেদ। গাড়িটি চালাচ্ছিলেন মো. শাহীন। মক্কা রেস্তোরাঁর সামনে আসতেই তাদের গাড়িটি থামায় আভিযানিক দল।

এ সময় তল্লাশি করে গাড়ির আসনের নিচে কালো রঙের স্কচটেপে মোড়ানো স্কেলসদৃশ ৪টি প্যাকেট থেকে চার কোটি টাকা মূল্যের ৮০টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। জব্দকৃত মোবাইল ফোনগুলোয় কোনো নম্বর সংরক্ষিত ছিল না। কিন্তু উইচ্যাট অ্যাপস ব্যবহার করে তাদের নেটওয়ার্ক সচল রেখেছিলেন গ্রেপ্তারকৃতরা।

শেখ নাজমুল আলম আরও জানান, গ্রেপ্তার তিনজন এতদিন ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে চোরাইপথে বাংলাদেশে সোনার চোরাচালান করে আসছিলেন। উড়োজাহাজের সিটের নিচে বা অন্য জায়গায় বিশেষ কায়দায় সোনার বার দেশে আনতেন তারা।

Please Share This Post in Your Social Media

One response to “এয়ারহোস্টেস-কর্মচারীদের যোগসাজশে শাহজালালে যেভাবে ঘটে স্বর্ণের চোরাচালান”

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 TV Site
Develper By ITSadik.Xyz